1. kamrulcse1@gmail.com : janatarkontho_24 : জনতারকণ্ঠ
  2. mostufakamalbd@gmail.com : মোস্তফা কামাল : মোস্তফা কামাল
  3. shariful.ja81@gmail.com : মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম : মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম
শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৫:২৭ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া যেকোনো ঘটনা বা যেকোনো বিষয়ে জনতারকণ্ঠে লিখে পাঠান।। লেখা পাঠাতে ইমেইল করুন : newsjanatarkontho@gmail.com
শিরোনাম :
সখিপুর কাহারতা হাই স্কুল মাঠে পৌর মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর তারেকের মতবিনিময় ঘাটাইলে দুই শিশু শিক্ষার্থী বলাৎকারে দুই মাদরাসা শিক্ষক আটক সখিপুরে মডার্ন ডক্টরস হসপিটাল সিজার রোগীর মৃত্যু,স্বজনদের ভাংচুর,পরে সমঝোতা সখিপুরে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত মৃত্যুর আগে ম্যারাডোনার অবাক করা সম্পদ সখিপুরে চুরি যাওয়া দুইটি অটো ইজিবাইক উদ্ধার ও গ্রেফতার ৩ আকবরকে পালাতে সহযোগীতার অভিযোগে সিলেটে ২ পুলিশ কর্মকর্তা সাময়িক বহিস্কার গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যা শরীয়তপুরে ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ঝালকাঠি হঠাৎ পুলিশ ফাঁড়ির সামনের ভবনের ছাদে পড়ল নারীর লাশ! সখিপুরে নবাগত ইউএনও’র সাথে রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিকদের মতবিনিমিয়

দেওয়ানগঞ্জে ৮৫ বছরের বৃদ্ধের সাথে ১১ বছরের মেয়ের বিয়ে,নাতির দায় দাদার

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০, সময়: ৭:২৭ pm
  • ৩১ বার

জনতার কণ্ঠ ২৪.ক

লম্পট নাতির কু-কর্মের দায় ৮৫ বছর বয়সী বৃদ্ধ দাদার উপর চাপানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

নাতির ধর্ষণে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা ও গর্ভপাত ঘটানোর ফল ভোগ করছেন বৃদ্ধ দাদা। স্থানীয় সালীশদার সাত সন্তানের জনক ৮৫ বছরের ওই বৃদ্ধের সঙ্গে ১১ বছরের কিশোরী মেয়ের বিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটিয়েছে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চরআমখাওয়া ইউনিয়নের বয়ড়াপাড়া গ্রামে।

স্থানীয় লোকজন জানান, স্থানীয় মহিলা মাদ্রাসার বিশেষ জামাত ( পঞ্চম শ্রেণি) শিক্ষার্থীর (১১) সঙ্গে সুরমান আলীর বখাটে ছেলে শাহিনের (১৮) শারীরিক সম্পর্কের ফলে ওই শিক্ষার্থী অন্তঃসত্ত্বা হয়, গত কয়েক দিন আগে কবিরাজি চিকিৎসায় গর্ভপাত ঘটানো হয়েছে, বিষয়টি ফাঁস হয়ে যাওয়ায় চলতি সপ্তাহে এ নিয়ে ইউপি সদস্য ও স্থানীয় মাতবররা এ বিষয়ে সালিশ বৈঠক করেন।

সালিশে নাতির কু-কর্মের দায় চাপিয়ে দেয়া হয় ৮৫ বছরের বৃদ্ধ দাদার ওপর। শেষে বৃদ্ধের সঙ্গেই ওই শিশুছাত্রীর বিয়ে দেয়া হয়।

১৮ নভেম্বর বুধবার সরেজমিনে গিয়ে ৮৫ বছরের বৃদ্ধ মহির উদ্দিনের সঙ্গে কথা বলে দেখা গেছে তিনি বয়সের ভারে নুঁইয়ে পরেছেন, ঠিকমতো কথা বলতেও পারেন না, ঠিক মতো চোখে ঝাপসা দেখেন না এই সাত সন্তানের পিতা।

দুই স্ত্রী মারা গেছেন অনেক আগেই। তৃতীয় বিয়েটি করেছেন ২৭ বছর আগে। বৃদ্ধকে জিজ্ঞাসা করা হয় চতুর্থ বিয়ে কী কারণে করলেন? সাংবাদিকদের বলেন- আমার উপর দোষ দিয়া বিয়া করাইছে গফুর মাস্টার, কদ্দুছ মাস্টার, নাদু মেম্বারসহ কয়েক জন।

আসলে আমি নির্দোষ। এ সময় দাঁড়িয়ে থাকা বৃদ্ধের মেয়ে আবেদা খাতুন সাংবাদিকদের বলেন- মেয়েটির গর্ভপাত বড়ি খাইয়ে নষ্ট করা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিশোরীর একজন শিক্ষক বলেন- বৃদ্ধের ছেলের ঘরের নাতি দোষ করেছে, এর দায়ভার জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকা ওই বৃদ্ধের ওপর চাপিয়ে শিশুটিকে বিয়ে দেয়া হয়েছে।

চরআমখাওয়া ইউনিয়নের সদস্য জয়নাল আবেদীন নাদু বলেন- মুরব্বিদের নিয়ে সালিশ করা হয়। সালিশে অনৈতিক কাজ করায় বৃদ্ধকে ১০ দোররা এবং শাহিনকে ১০টি দোররা মেরে শরীয়ত মতে বিয়ে হয়। তবে তার ছেলে ঘরের নাতি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত না।

এ ঘটনার জন্য বৃদ্ধই দায়ী। চরআমখাওয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান আকন্দ জানান- এটা আশ্চর্য ও ন্যক্কারজনক ঘটনা।

যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ওসি এমএম মইনুল ইসলাম বলেন, এ ধরনের ঘটনা আমার জানা নেই।

অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। জনমনে প্রশ্ন উুঁদুর পিণ্ডি বুদুর ঘাড়ে চাপানোর দায় কেমনে বহন করবে এই বৃদ্ধ? নাতির দায় ভার বৃদ্ধের উপর চাপানোর পেছনে কোন অপশক্তি কাজ করছে?

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..